করোনা ভাইরাস প্রতিরধের উপায়

করোনাভাইরাস একটি কদম ফুলের মত দেখতে ভাইরাস , যার নামকরন করা হয়েছে COVID-19 , বর্তমানে (SARS-CoV-2)। ভাইরাসটি মূলত মানুষের ফুসফুসে আক্রমণ করে। এটি একটি সংক্রামক ভাইরাস যা প্রায় বিশ্বের সব দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। যেহেতু এখন পর্যন্ত এর কোন কার্যকরী চিকিতসা নেই... তাই প্রতিরোধই একমাত্র উপায়।

করোনা ভাইরাস প্রতিরধের উপায়

#আপনার হাত প্রায়শই পরিষ্কার করুন :

১) কমপক্ষে 20 সেকেন্ডের জন্য আপনার হাত প্রায়শই সাবান এবং পানি দিয়ে ধুয়ে নিন

যদি সাবান এবং পানি সহজেই না পাওয়া যায়, তবে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করুন যাতে কমপক্ষে 60% অ্যালকোহল থাকে আপনার হাতের তালু ও সমস্ত পৃষ্ঠকে স্যানিটাইজার দিয়ে ভিজিএ রাখুন এবং শুষ্ক বোধ না হওয়া পর্যন্ত দুই হাত ঘষুন। হাত না ধুয়ে আপনার চোখ, নাক এবং মুখ স্পর্শ করা এড়িয়ে চলুন।

বিস্তারিত দেখতে WHO ভিডিও লিংকঃ   https://www.youtube.com/watch?v=y7e8nM0JAz0

#সামাজিক দূরত্ব মেনে চলুনঃ
১)যারা অসুস্থ মানুষের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ করবেন না
২) অবশই যতটা সম্ভব বাড়িতে থাকুন। সরকারি সকল স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন।
৩)বাড়িতে নিজের এবং অন্যান্য মানুষের মধ্যে দূরত্ব রাখুন।
৪) মনে রাখবেন যে লক্ষণ ছাড়াই কিছু লোক ভাইরাস ছড়িয়ে দিতে সক্ষম হতে পারে।
৫) অন্যদের থেকে দূরে রাখা বিশেষত যারা খুব অসুস্থ হওয়ার ঝুঁকি নিয়ে থাকেন তাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ।

#সবসময়ে মাস্ক ব্যবহার করুনঃ

১) অনেকে করোনা ভাইরাস এর নিরব বাহক। তারা অসুস্থ বোধ না করেও অন্যদের কাছে COVID-19 ছড়িয়ে দিতে পারেন। তাই প্রত্যেককে প্রকাশ্যে বাইরে বেরোনোর ​​সময় কাপড়ের মুখে মাস্ক পরা উচিত, উদাহরণস্বরূপ মুদি দোকানে বা অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিসগুলি কিনতে গেলে, ময়লা ফেলতে গেলে

২) ০২ বছরের কম বয়সী বাচ্চাদের উপর কাপড়ের মুখের আবরণ রাখা উচিত নয় অথবা যে কেউ শ্বাসকষ্টে অসুস্থ হয়ে পড়েছে, বা অজ্ঞান, অক্ষম বা অন্যথায় সহায়তা ছাড়াই মুখোশটি সরাতে অক্ষম।  নিজের এবং অন্যদের মধ্যে প্রায় ফুট দূরত্ব রেখে চলুন।

৩) মনে রাখবেন মাস্ক কিন্তু সামাজিক দূরত্বের বিকল্প নয়।

# কাশি এবং হাঁচির নিয়ম মেনে চলুনঃ

১) কাশি এবং হাঁচির সময় মুখ ঢেকে রাখুন। প্রয়জনে মাস্ক এর ভিতরে কাশি এবং হাঁচি দিবেন।

২) হটা কাশি বা হাঁচি লেগে আসলে, আপনার কনুইয়ের অভ্যন্তরটি ব্যবহার করুন। অথবা আপনার মুখ এবং নাকটি টিস্যু দিয়ে সর্বদা ঢেকে কাশি বা হাঁচি এবং ব্যবহৃত টিস্যু ঢাকনা যুক্ত ডাস্টবিন নিক্ষেপ করুন। অবিলম্বে আপনার হাত সাবান এবং পানি দিয়ে কমপক্ষে 20 সেকেন্ডের জন্য ধুয়ে ফেলুন। যদি সাবান এবং জল সহজেই উপলভ্য না হয় তবে একটি হাত স্যানিটাইজার দিয়ে আপনার হাত পরিষ্কার করুন যাতে কমপক্ষে 60% অ্যালকোহল থাকে।

# পরিষ্কার এবং জীবাণুমুক্তকরন
১) প্রতিদিন স্পর্শ করা পৃষ্ঠগুলিকে পরিষ্কার করুন এবং জীবাণুমুক্তান্দেল। এর মধ্যে রয়েছে টেবিল, ডোরনবস, হালকা সুইচগুলি, কাউন্টার টপস, হ্যান্ডল, ডেস্ক, ফোন, মোবাইল, ল্যাপটপ, মাউস, কীবোর্ডগুলি, টয়লেট,পানির কল, ফ্রিজের হাতল, রিমত, চিরুনি, স্যান্ডেল ইত্যাদি রয়েছে। এগুলো নোংরা হোক বা না হক, প্রতিদিন ডিটারজেন্ট বা সাবান এবং পানি অথবা  ব্লিচিং পানি অথবা দিয়ে জীবাণুমুক্ত করুন। যদি সাবান এবং জল সহজেই উপলভ্য না হয় তবে একটি হাত স্যানিটাইজার দিয়ে আপনার হাত পরিষ্কার করুন যাতে কমপক্ষে 60% অ্যালকোহল থাকে।
# ভ্রমন সতর্কতাঃ  

সরকার নির্দেশিত নিয়ম মেনে অবশই ঘরে থাকুন

সকল প্রকার ভ্রমন থেকে বিরত থাকুন।

 

#খাবার রান্নায় সতর্কতাঃ  

যেকোনো খাবার ভালভাবে রান্না/সিদ্দ করে খাবেন।

খাবার ভাল ভাবে ধুয়ে রান্না করবেন।

#পশু পাখি হতে সতর্কতাঃ  

যেকোনো অসুস্থ পশু / পাখি থেকে দূরে থাকবেন।

# অসুস্থ রোগীর ক্ষেত্রে সতর্কতাঃ  

১) মারাত্মক অসুস্থ রোগীকে হাসপাতালে যেতে বলুন।

২) রোগীকে মাস্ক ব্যবহার করতে বলুন।

৩) রোগীর নাম, বয়স, পূর্ণ ঠিকানা সংরক্ষন করুন এবং আইইডিসিআর এর করোনা কন্ট্রোল রুমে (০১৭০০-৭০৫৭৩৭) অথবা হটলাইন (১৯৪৪-৩৩৩২২২, 01937-110011, 01937-000011, 01927-711784, 01927-711785) যোগাযোগ করুন।

# অন্যান্য করোনাভাইরাস জরুরি সেবাঃ  

  • ৩৩৩ ন্যাশনাল কল সেন্টার
  • ১৬২৬৩ স্বাস্থ্য বাতায়ন
  • ১০৬৫৫ আইইডিসিআর
  • ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন
  • ১০৯ ন্যাশনাল হেল্পলাইন

         তথ্য সোর্স: corona.gov.bd & who.int