COVID-19 এ গর্ভাবস্থা, প্রসব এবং বুকের দুধ খাওয়ানো (#WHO Recommendation)

গর্ভবতী মহিলাদের উপর COVID 19 সংক্রমণের প্রভাবগুলি বোঝার জন্য বর্তমানে WHO এর গবেষণা চলছে এবং সাধারণ জনগণের তুলনায় গর্ভবতী মহিলাদের  মারাত্মক অসুস্থতার ঝুঁকিতে থাকার তেমন কোনও প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

COVID-19 এ গর্ভাবস্থা, প্রসব এবং বুকের দুধ খাওয়ানো (#WHO Recommendation)

#কোভিড -১৯ এ গর্ভবতী মহিলারা কি বেশি ঝুঁকিতে আছেন?

১)গর্ভবতী মহিলাদের উপর COVID 19 সংক্রমণের প্রভাবগুলি বোঝার জন্য বর্তমানে WHO এর গবেষণা চলছে এবং সাধারণ জনগণের তুলনায় গর্ভবতী মহিলাদের  মারাত্মক অসুস্থতার ঝুঁকিতে থাকার তেমন কোনও প্রমাণ পাওয়া যায়নি

২) তবে এ সময়ে তাদের দেহ এবং রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাতে পরিবর্তনের কারণে আমরা জানি যে গর্ভবতী মহিলারা কিছু শ্বাস প্রশ্বাসের সংক্রমণ দ্বারা খারাপভাবে আক্রান্ত হতে পারে। সুতরাং এটি গুরুত্বপূর্ণ যে তারা COVID-19 এর থেকে নিজেকে রক্ষা করার জন্য অবশই সতর্কতা অবলম্বন করবেন এবং নিয়মিত স্বাস্থ্য কর্মী / ডাক্তার এর কাছে সম্ভাব্য কোন লক্ষণ (জ্বর, কাশি বা শ্বাসকষ্ট সহ যেকোনো উপসর্গ দেখা দিলে) অবহিত করুন।

 

#আমি গর্ভবতী. আমি কীভাবে কোভিড -১৯ এর বিরুদ্ধে নিজেকে রক্ষা করতে পারি?

গর্ভবতী মহিলাদের অন্যান্য লোকের মতো কোভিড -১৯সংক্রমণ এড়াতে একই সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত। আপনি নিজেকে রক্ষা করতে সাহায্য করতে পারেন এর মাধ্যমে:

 

১) অ্যালকোহল ভিত্তিক হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করুন (যাতে কমপক্ষে 60% অ্যালকোহল থাকে) বা সাবান এবং পানি দিয়ে ঘন ঘন আপনার হাত ধোয়া।

২)নিজের এবং অন্যদের মধ্যে দুরত্ত রাখা এবং জনাকীর্ণ স্থানগুলি  এড়িয়ে চলা।

৩) অপরিষ্কার হাত দিয়ে চোখ, নাক এবং মুখ স্পর্শ না করা

৪)শ্বসন হাইজিন অনুশীলন। এর অর্থ আপনি যখন কাশি বা হাঁচি দিবেন তখন আপনার বাঁকানো কনুই বা টিস্যু দিয়ে আপনার মুখ এবং নাকটি ডেকে রাখুন। তারপরে অবিলম্বে ব্যবহৃত টিস্যুগুলি  ঢাকনা যুক্ত ডাস্টবিন আ ফেলুন।

৫) আপনার যদি জ্বর, কাশি বা শ্বাস নিতে সমস্যা হয় তবে তাড়াতাড়ি চিকিত্সকের পরামর্শ  নিন। স্বাস্থ্যকেন্দ্রে যাওয়ার আগে কল করুন এবং আপনার স্থানীয় স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের নির্দেশাবলী অনুসরণ করুন।

 

৬)গর্ভবতী মহিলা এবং মহিলা যারা সম্প্রতি ডেলিভারী করেছেন – তারা তাদের ডাক্তার এর দেয়া নিয়মিত রুটিন মেনে চলুন।

 

#কোভিড -১৯ কি কোনও মহিলা থেকে তার অনাগত বা নবজাতক শিশুর কাছে যেতে পারে?

এখনও জানা যায়নি যে কোভিড -১৯ আক্রান্ত কোনও গর্ভবতী মহিলা গর্ভাবস্থা বা প্রসবের সময় ভাইরাসটি তার ভ্রূণ বা নবজাতকে  ছড়াতে পারে কিনা। আজ অবধি, অ্যানিওটিক তরল বা বুকের দুধের নমুনায় ভাইরাসটি পাওয়া যায় নি।

#কোভিড -১৯ এ গর্ভাবস্থা এবং প্রসবের সময় কোন যত্ন পাওয়া উচিত?

নিশ্চিত বা সন্দেহযুক্ত COVID-19 সংক্রমণ সহ সমস্ত গর্ভবতী মহিলাদের প্রসবের আগে, সময়কালে এবং পরে উচ্চমানের যত্ন নিতে হবে। এর মধ্যে প্রসবপূর্ব, নবজাতক, প্রসবোত্তর, অন্তঃসত্ত্বা এবং মানসিক স্বাস্থ্যসেবা অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

একটি নিরাপদ এবং ইতিবাচক প্রসব অভিজ্ঞতার মধ্যে রয়েছে:

১) অবশই সম্মান ও মর্যাদার সাথে আচরণ করা;

২) প্রসবের সময় পছন্দের সহচর উপস্থিত;

৩) প্রসূতি কর্মীদের দ্বারা পরিষ্কার যত্ন নেয়া;

৪) প্রসব ব্যথা ম্যানেজমেন্ট কৌশল:

৫) দ্রুত প্রসব যেখানে সম্ভব এবং পছন্দের জন্ম দান স্থানে জন্ম দেয়া

যদি COVID-19 সন্দেহজনক বা নিশ্চিত হয়ে থাকে তবে স্বাস্থ্যকর্মীদের নিজের এবং অন্যের হাতে সংক্রমণের ঝুঁকি হ্রাস করার জন্য যথাযথ সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত, হাতের স্বাস্থ্যবিধি এবং গ্লাভস, গাউন এবং মেডিকেল মাস্কের মতো সুরক্ষামূলক পোশাকের যথাযথ ব্যবহার নিশিতকরন

#কোভিড -১৯ এ আক্রান্ত মহিলারা কি বুকের দুধ খাওয়ান?
হ্যাঁ. কোভিড -19 আক্রান্ত মহিলারা যদি তারা এটি করতে চান তবে বুকের দুধ পান করাতে পারেন।

তবে তাদের উচিত:

খাওয়ানোর সময় শ্বাস প্রশ্বাসের স্বাস্থ্যকর অভ্যাস অনুসরন করা এবং মাস্ক পরা। শিশুকে স্পর্শ করার আগে এবং পরে ভালভাবে হাত ধুয়ে নিতে হবে। তারা যেসব জিনিস স্পর্শ করবেন স্পর্শ করেছেন সেগুলি নিয়মিত পরিষ্কার এবং জীবাণুমুক্ত করতে হবে।

 

#কোভিড -১৯ এ আক্রান্ত মহিলারা কি তার নবজাতককে স্পর্শ করতে এবং ধরে রাখতে পারেন?
হ্যাঁ. কাছাকাছি যোগাযোগ এবং স্তন্যপান শিশুর উন্নতি এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সহায়তা করে।

তবে তাদের উচিত:

১) শ্বাস প্রশ্বাসের পরিছন্নতা মেনে নিরাপদে বুকের দুধ খাওয়ানো

২) নবজাতকে ত্বক থেকে ত্বক ধরে রাখুন, এবং শিশু সহ আলাদা রুমে থাকুন।

৩) আপনার শিশুর স্পর্শ করার আগে এবং পরে আপনার হাত ধুয়ে নেওয়া উচিত এবং সমস্ত হাতের পৃষ্ঠ পরিষ্কার রাখা উচিত।

#কোভিড -১৯ এ আক্রান্ত মহিলারা সরাসরি আমার বাচ্চাকে বুকের দুধ খাওয়ানোর জন্য খুব অসুস্থ। তাহলে কি করবে?
যদি কেহ কোভিড -19 বা অন্যান্য জটিলতার কারণে আপনার শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ানোর পক্ষে খুব অসুস্থ না হন তবে তাকে সন্তানের বৃদ্ধি ও শারিরিক উন্নতির জন্য বুকের দুধ খাওয়ানো উচিত।

তবে তা করা যেতে পারে.।।

১) দুধ বের করে খাওয়ানো;

২)কিছু সময় গ্যাপ দিয়ে খাওয়ানো;

৩)একান্ত না পারলে... মাতৃ দুগ্ধ দাতা মানুষের দুধ।

# অসুস্থ রোগীর ক্ষেত্রে সতর্কতাঃ  

১) মারাত্মক অসুস্থ রোগীকে হাসপাতালে যেতে বলুন।

২) রোগীকে মাস্ক ব্যবহার করতে বলুন।

৩) রোগীর নাম, বয়স, পূর্ণ ঠিকানা সংরক্ষন করুন এবং আইইডিসিআর এর করোনা কন্ট্রোল রুমে (০১৭০০-৭০৫৭৩৭) অথবা হটলাইন (১৯৪৪-৩৩৩২২২, 01937-110011, 01937-000011, 01927-711784, 01927-711785) যোগাযোগ করুন।

 # করোনাভাইরাস জরুরি সেবাঃ   

  • ৩৩৩ ন্যাশনাল কল সেন্টার
  • ১৬২৬৩ স্বাস্থ্য বাতায়ন
  • ১০৬৫৫ আইইডিসিআর
  • ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন
  • ১০৯ ন্যাশনাল হেল্পলাইন

তথ্য সোর্সঃ  https://www.who.int/news-room/q-a-detail/q-a-on-covid-19-pregnancy-childbirth-and-breastfeeding